রাজনগর টেংরা ইউনিয়নে কলেজ স্থাপন করতে চাই : টিপু খান

0
81

 টেংরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান টিপু খানের বিশেষ সাক্ষাৎকার 

 ইউপি চেয়ারম্যান টিপু খাঁন  বাংলার দিনকে দেওয়া বিশেষ সাক্ষাৎকার

মোঃ আব্দুল কালাম, মৌলভীবাজার : রাজনগর উপজেলার ৬ নং টেংরা ইউনিয়ন পরিষদের টানা ২ বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান টিপু খাঁন  ৩ ডিসেম্বর শ্রক্রবার বিকেলে এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে ইউনিয়নের সার্বিক উন্নয়ন কর্মকান্ড ও আগামীদিনের কর্মপরিকল্পনা সম্পর্কে যা বললেন।

প্রতিবেদক: আপনি সর্বপ্রথম কত সালে টেংরা ইউপির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন?

টিপু খান: আমি সর্বপ্রথম ২০১১ সালে টেংরা ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে ৮ হাজারের অধিক ভোট বেশি পেয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলাম। আমার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আব্দুল মোতালেব কাদের পেয়েছিলেন ১৪০০+ ভোট। জনগণের ভালবাসার প্রতিদানে আমি প্রথমবার নির্বাচিত হওয়ার পর অনেক উন্নয়ন কর্মকান্ড করেছি। যার প্রতিদানস্বরুপ পরবর্তীতে আবারও আমাকে তারা নির্বাচনে বিজয়ী করেছেন। আমি ছাত্রজীবন থেকে আওয়ামী রাজনীতির সাথে জড়িত।

প্রতিবেদকঃ আপনি কেন পুনরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে চান?

টিপু খানঃ আমি আমার অসমাপ্ত সকল উন্নয়ন কর্মকান্ড সমাপ্ত করতে চাই। পাশাপাশি আমার ইউনিয়নে একটি কলেজ স্থাপন করতে চাই। জনগনের ভালবাসাই এখানে মূখ্য বিষয় জনগণ আমার বিগত বছরের উন্নয়ন কর্মকান্ডসমূহ দেখেছে তারা চাচ্ছে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে পুনরায় আমাকে নির্বাচিত করতে। তাই জনগনের ভালবাসার কারণে আমি পুনরায় চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে দাড়াবো।

প্রতিবেদক:বিগত দিনে আপনি ব্যতিক্রমী কি কি উন্নয়ন কর্মকান্ডগোলো করেছেন?

টিপু খানঃ আমি শিক্ষা ক্ষেত্রে উন্নয়নের জন্য শহীদ সুদর্শন উচ্চ বিদ্যালয়কে সরকারি করণ করেছি। যেসকল এলাকায় প্রাথমিক বিদ্যালয় নেই সেখানে বিদ্যালয় প্রতিষ্টা করেছি। আগামী দিনে নির্বাচিত হলে ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সকে আধুনিকায়ন করে বৃহৎ পরিসরে নির্মাণ করবো। বিধবা ভাতা,  বয়স্ক ভাতা, সহ সরাকারের সকল সেবা সাধারণ মানুষের দেড়ঘোড়ায় পৌছিয়েছি। খেলা ধুলা ও সংস্কৃতির ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন কার্ষক্রম সম্পাদন করেছি। নিরাপদ পানির ব্যবস্থা করেছি। ইউনিয়নের অধিকাংশ সড়ক সংস্কার ও পুনঃনির্মাণের কাজ গোলো সমাপ্ত করেছি। বিচারিক কাজ গোলো দ্রুত নিষ্পত্তি করেছি। চুরি ডাকাতি রোধে কাজ করেছি। এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি খুবই স্বাভাবিক ছিলো। সবদলের মানুষের মাঝে আমি নিরপেক্ষভাবে করেনাকালীন সময়ে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছি।

প্রতিবেদকঃ আপনার ইউনিয়নের ভোটারদের প্রতি কোনো বার্তা আছে কি?

টিপু খানঃ আমার এলাকার ভোটাররা অত্যন্ত সচেতন ও বিচক্ষণ তারা যদি আমাকে যোগ্য মনে করে তাহলে আগামী ইউপি নির্বাচনে ২৬ ডিসেম্বর আমাকে পুনরায় নির্বাচিত করবে। তারা যাকে যোগ্য মনে করবে তারা যেন তাকে ভোট দেয়। কোনো ধরনের ভয়ভীতি কেউ দেখালে তারা যেন প্রভাবিত না হয়। এবং তারা যেন নির্বাচনে সঠিক যোগ্য ব্যক্তি নির্বাচন করে সে ব্যাপারে তাদের প্রতি রইলো আমার আকুল আবেদন তারা যেন টাকার কাছে নথি স্বীকার না করে। নির্বাচনী পরিবেশ শান্ত ও সুন্দর রাখার জন্য সকল ভোটারদের সহযোগিতা প্রয়োজন৷

প্রতিবেদক: নির্বাচনে পুনরায় বিজয়ী হওয়ার ব্যাপারে আপনি কতটা আশাবাদী?

টিপু খান: আমি আশা করি সকল ভোটাররা যোগ্য প্রার্থী দেখে ভোট দিবে। প্রশাসন নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করবে। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ হলে জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদ রয়েছে।